আইপিএলে খেলাটাও গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার, টাকাটাও অনেক বড় ইস্যু

0
13

ঘরোয়া টি২০ ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় আসর ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ-আইপিএলে। পাকিস্তান বাদে প্রায় সব দেশের ক্রিকেটাররা আইপিএলে খেলে থাকেন। রাজনৈতিক দ্বন্দ্বের কারণে আইপিএলে খেলা হয় না পাক ক্রিকেটারদের।

 

টি২০ ক্রিকেটের উন্মাদনার সঙ্গে টাকা-পয়সারও উত্তাপ থাকে আইপিএলে। কোটি কোটি টাকা ব্যয়ে বিদেশী ক্রিকেটারদের কিনে থাকে আইপিএলের ফ্রাঞ্চাইজিগুলো।

 

অবশ্য তারাও আইপিএলের মাধ্যমে এর চেয়েও বেশি টাকা আয় করে থাকে। ইংল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া বা ওয়েস্ট ইন্ডিজের যতো ক্রিকেটার আইপিএলে খেলার সুযোগ পান তার চেয়ে বাংলাদেশের খুব কম ক্রিকেটারই এই বড় আসরে খেলার সুযোগ পান।

 

আইপিএলে কলকাতা নাইট রাইডার্সের হয়ে দীর্ঘদিন মাঠ মাতাচ্ছেন বাংলাদেশের তারকা ক্রিকেটার সাকিব আল হাসান। গত আসরে প্রথমবার সানরাইজার্স হায়দরাবাদের হয়ে মাঠ মাতান বাংলাদেশের তরুণ পেস বোলার মোস্তাফিজর রহমান।

 

পুরো আইপিএলে দারুণ বল করেন মোস্তাফিজ। তার দলও আইপিএলের শিরোপা ঘরে তোলে। আইপিএলে টানা বল করার পর ইনজুরিতে পড়েন মোস্তাফিজ। দেড়মাস বিশ্রাম নিয়ে আবার চলে যান ইংলিশ কাউন্টি খেলতে।

 

খেলতে যাবেনই না বা কেন? ভিন্ন ভিন্ন দল ও আবহাওয়ায় গিয়ে খেললে নিজের অভিজ্ঞতা বাড়বে। তাছাড়া টাকা-পয়সারও তো একটা বিষয় আছে!

 

সেখানে গিয়ে আবারও ইনজুরিতে পড়েন মোস্তাফিজ। ইনজুরি তাকে মাঠের বাইরে ঠেলে দেয় দীর্ঘ ছয় মাস। ফলাফল, ঘরের মাঠে আফগানিস্তান ও ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজ খেলা হলো না।

 

আফগানদের বিপক্ষে সিরিজ জিততে পারলেও ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ হারে বাংলাদেশ। অনেকেই মনে করেন যদি মোস্তাফিজ থাকতো তাহলে হয়তো বাংলাদেশ ইংল্যান্ডের বিপক্ষেও ঘরের মাঠে সিরিজ জিততে পারতো।

 

এরপর দীর্ঘ বিরতি দিয়ে নিউজিল্যান্ড সিরিজে মাঠে নামলেন মোস্তাফিজ। তবে নিয়মিত তাকে দলে রাখা হয়নি। বিশ্রাম দিয়ে খেলানো হয়েছে। কোমরের ব্যথার কারণেই নাকি তাকে বিশ্রাম দেয়া হয়েছে।

 

সামনে আবারও আসছে আইপিএলের আসর। মোস্তাফিজের দল হায়দরাবাদ এবারও তাকে দলে রেখে দিয়েছে। তবে মোস্তাফিজ শতভাগ সুস্থ না হলে তাকে আইপিএল খেলতে পাঠানো হবে না বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড-বিসিবির সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন।

 

তবে আইপিএলে খেলতে পারাটা একজন খেলোয়াড়ের জন্য গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার বলে মনে করছেন পাপন।

 

সোমবার এক সংবাদ সম্মেলনে পাপন বলেন, আইপিএলে খেলতে পারাটা বিরাট একটা ব্যাপার। এছাড়া টাকার ব্যপারটাও ফেলে দেয়া যায় না। অনেক টাকা। তাই এটা অনেক বড় ইস্যু।

 

তবে মোস্তাফিজকে নিয়ে কোনো ঝুঁকি নিতে চাইছে না বিসিবি। পাপন বলেন, মোস্তাফিজ যদি শারীরিকভাবে শতভাগ সুস্থ না থাকে তাহলে এক শতাংশ ঝুঁকিও বিসিবি নেবে না। সেখানে খেলার প্রশ্নই আসে না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here