​রোহিঙ্গাদের প্রতি এদেশের জনতার মনে বিদ্বেষ সৃষ্টি করতে কাজ করছে মিডিয়া

0
66

রোহিঙ্গাদের প্রতি এদেশের জনতার মনে বিদ্বেষ সৃষ্টি করতে কাজ করছে মিডিয়া

“রোহিঙ্গার দায়ের কোপে বাংলাদেশি নিহত” হেড লাইনে দেশের সকল গনমাধ্যমে ইতিমধ্যে প্রকাশিত হয়েছে। কিছুদিন ধরেই দেখা যাচ্ছে দেশের মিডিয়া গুলো রোহিঙ্গা বিরোধী একটি মনোভাব এদেশের জনতার মাঝে ঢুকিয়ে দিতে পরিকল্পিতভাবে কাজ করছে।

সরেজমিনে খবর নিয়ে জানা যায়, কক্সবাজারের রামু উপজেলার খুনিয়াপালং ইউনিয়নে শনিবার ভোরে এক বাংলাদেশির মৃত্যু হয়েছে। তাঁর নাম আবদুল জব্বার (৩৫)। যে খুন করেছে তার নাম জিয়াবুল হক। যার মুল কারন ছিল পরকীয়া।

খেদারঘোনা এলাকার রোহিঙ্গা মীর আহমদের ছেলে জিয়াবুল হক। আর মালয়েশিয়া প্রবাসী শামসুল আলমের স্ত্রী ভেলুয়ারা বেগম (২৮) এর ভাইয়ের ছেলে সে।

নিহত আবদুল জব্বারের ভগ্নিপতি সুলতান আহমদ ও চাচা রমিজ আহমদ জানান, ভেলুয়ারা বেগম একজন রোহিঙ্গা নারী। তিনি তার পরিবারের সঙ্গে অনেকদিন আগে বাংলাদেশে আসেন। এই এলাকার শামসুল আলম ভেলুয়ারাকে বিয়ে করেন। পরে শামসুল আলম মালয়েশিয়া চলে যান। এই সুযোগে ভেলুয়ারা বেগমের সঙ্গে আবদুল জব্বারের পরকীয়া সম্পর্ক গড়ে ওঠে। শুক্রবার রাতে ভেলুয়ারের কক্ষে ঢুকেন জব্বার। এসময় তাদের আপত্তিকর অবস্থায় দেখে ফেলেন ভেলুয়ারা বেগমের ভাতিজা জিয়াবুল হক। তখন ক্ষিপ্ত হয়ে জিয়াবুল হক দা দিয়ে আবদুল জব্বারের মাথায় কোপ দেন। এতে ঘটনাস্থলে মারা যান আবদুল জব্বার। ”

পুলিশ ও স্বীকার করেছে যে পরকীয়ার ঘটনার জেরেই এ হত্যাকাণ্ড ঘটেছে। অথচ মিডিয়া বিভ্রান্তিকর খবর প্রকাশ করে এদেশের জনতার মনে রোহিঙ্গাদের প্রতি বিদ্বেষ সৃষ্টি করতে চেয়েছে। তারা একে জাতিগত সাম্প্রদায়ীকরনে উস্কানী দিয়েছে।

পার্বত্য চট্রগ্রামে যে উপজাতি সন্ত্রাসীরা প্রতিনিয়ত বাঙ্গালীদের হত্যা করে চলেছে তা নিয়ে কোন মিডিয়া বলেনা যে উপজাতি কতৃক বাঙ্গালী খুন হয়েছে।
কমরেড মাহমুদ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here